মেনু নির্বাচন করুন

নাগরপুর কেন্দ্রীয় মহা শ্মশান

স্থাপিত ঃ ১৩২৮

কেন্দ্রীয় মহা শশ্মান

‘‘মামুদনগর স্বগীয় ভজ গোবিন্দ সাহা মহাশয়ের শ্মশান ঘাট’’ নাগরপুর উপজেলার কেন্দ্রীয় মহা শ্মশান নামে পরিচিত। কোন ব্যক্তির নামে শ্মশান ঘাট হবার পরও এলাকার সকল স্তরের হিন্দু সম্প্রদায়ের শবদেহ এ শ্মশানে দাহ হয়ে থাকে। স্বগীয় ভজ গোবিন্দ্র সাহা নাগরপুর উপজেলায় বাবনাপাড়া গ্রামে বাংলার ১২৬২ বঙ্গাব্দে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা ছিলেন স্বগীয় রাম গোবিন্দ সাহা। তিনি একজন সাধক মানুষ ছিলেন। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ভজ গোবিন্দ সাহা অবিভক্ত ভারতবর্ষের কোলকাতায় ব্যবস্থা করে এ এলাকায় একজন সৎ বিত্তশালী ও দানশীল ব্যক্তি হিসেবে পরিচিতি পান। ১৩২৮ বঙ্গাব্দে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর মৃত্যুর পর তাঁকে মামুদনগর মৌজায় গোরদহ পাড়ায় দাহ করা হয়। এ সময় স্থানটি গোরদহ পাড়া হিসাবে পরিচিত থাকলেও পরবর্তী কালে মামুদনগর নাম নিয়ে চার একর জমির উপর এই মহা শ্মশান প্রতিষ্ঠিত হয়।

কিভাবে যাওয়া যায়:

নাগরপুর সদরে


Share with :

Facebook Twitter